শহিদ সিরাজ লেকে ‘ইত্যাদি পয়েন্ট’, সমালোচনার মুখে টনক নড়লো প্রশাসনের

সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

শহিদ সিরাজ লেকে ‘ইত্যাদি পয়েন্ট’, সমালোচনার মুখে টনক নড়লো প্রশাসনের

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি

১৮/০১/২০২৪ ০৬:১৬:৩৮ /

শহিদ সিরাজ লেকে ‘ইত্যাদি পয়েন্ট’, সমালোচনার মুখে টনক নড়লো প্রশাসনের

Share
18

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে নিলাদ্রী লেক হিসেবে পরিচিতি পাওয়া শহিদ সিরাজ লেগে হঠাৎ করেই নির্মাণ করা হয় ‘ইত্যাদি পয়েন্ট’। ঐতিহাসিক স্মৃতিবিজরিত এই পর্যটনস্পটকে ‘ইত্যাদি পয়েন্ট’ নামকরণে ফেসবুকে তীব্র সমালোচনা দেখা দেয়। সমালোচনার মুখে অবশেষে প্রশাসন ‘ইত্যাদি পয়েন্ট’ লেখা স্থাপনা ভেঙে ফেলার উদ্যোগ নিয়েছে।

জানা যায়, তাহিরপুর উপজেলার টেকেরঘাটের শহিদ সিরাজ লেকের সামনে ২০১৮ সালে ধারণ করা জনপ্রিয় টিভি অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’-এ একটি বিশেষ পর্ব।

ইত্যাদি অনুষ্ঠান হওয়ায় সম্প্রতি এই লেকের সামনে জেলা প্রশাসনকে অনুমতি নিয়ে ইট-পাথরের তৈরি ‘ইত্যাদি ফলক’ নামে ফলক নির্মাণ করা শুরু করে পর্যটন কর্পোরেশন। এ দৃশ্য চোখে পড়ার পর স্থানয়িদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। অনেকেই ফেসবুকে এর তীব্র সমালোচনা করেন।

এমন কান্ডের সমালোচনা করে লেখক ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষক হাসান মোরশেদ ফেসবুকে লেখেন- মুক্তিযুদ্ধে ৫ নং সেক্টরের টেকেরঘাট সাব-সেক্টর হেডকোয়ার্টার এখানে। এই জায়গা থেকে যাত্রা শুরু করে ভাটি অঞ্চলে দুর্দান্ত সব অপারেশন চালাতেন মুক্তিবাহিনীর গেরিলারা। অপারেশনে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের কবরও হতো এখানে। সাচনা যুদ্ধে শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজসহ অনেক যোদ্ধার কবর রয়েছে এখানে। শহীদ সিরাজের সম্মানে মুক্তিযোদ্ধা ও স্থানীয় মানুষেরা এই লেকের নামকরন করেছিলেন- শহীদ সিরাজ লেক।

বছর কয়েক আগে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক এই লেক সহ এলাকা নিয়ে ❝ডিসি পার্ক❞ করার ঘোষনা দিয়েছিলেন। আমরা প্রতিবাদ করেছিলাম। সজ্জন জেলা প্রশাসক সাবিরুল ইসলাম বিষয়টির গুরুত্ব উপলব্ধি করে ডিসি পার্ক নামকরন বাদ দেন এবং জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ❝শহীদ সিরাজ লেক❞ সাইনবোর্ড টানানো হয়, পর্যটকদের জন্য কিছু অবকাঠামোও নির্মাণ করে দেয়া। জেলা প্রশাসক তখন সবার প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন।

এরপর এখানে হানিফ সংকেত তার ইত্যাদি প্রোগ্রামের একটি পর্ব শ্যুট করেন। সেটাও বছর কয়েক আগের ঘটনা। এখন এই ঐতিহাসিক জায়গাকে কারা ❝ইত্যাদি পয়েন্ট❞ নামকরন করে স্থায়ী স্থাপনা নির্মাণ করছে? কীসব ফাতরামি কাজ এগুলো! ’

সুনামগঞ্জের সাংবাদিক এ আর জুয়েল এমন স্থাপনা নির্মাণের সমালোচনা করে লেখেন- এটা কোন তামাশা! এই জায়গাটি সুনামগঞ্জের অপরুপ সৌন্দর্যের,মুক্তিযুদ্ধেরস্মৃতি বিজড়িত হিসেবেই সারা দেশব্যাপী পরিচিত। সবাই শহিদ সিরাজ লেক (নীলাদ্রি) হিসেবেই চিনে। এটাকে ইত্যাদি পয়েন্ট নাম দিয়ে কেন পরিচিত করতে হবে। এই জায়গাটি সারাদেশে ব্যপী পরিচিত বলেই হানিফ সংকেত এখানে এসে ইত্যাদি অনুষ্ঠানটি করেছেন। প্রকৃতিকে এমন ভেঙেচুরে ইটপাথরে বানিজ্যিক নাম দিয়ে অপরুপ সুনামগঞ্জের এ জায়গাটাকে ইত্যাদির কাছে বিক্রি করা হচ্ছে। নয়নাভিরাম এ লেকটিকে ধ্বংসের এমন উপহাস কারা করছে।এটি শহীদ সিরাজ লেক বাইরের পর্যটকদের কাছে সৌন্দর্যের নীলাদ্রি একে ইত্যাদি নামক বানিজ্যিক নামকরণ দিয়ে কলুষিত করবেন না নয়তো আমরা যারা সুনামগঞ্জকে ভালোবাসি অপূর্ব সুনামগঞ্জকে সারা বিশ্বে আমাদের প্রকৃতিকে ছড়িয়ে দিতে কাজ করি তারা বসে থাকবো না। এর বিরুদ্ধে কঠোরভাবে রুখে দাড়াবো। তাই কর্তৃপক্ষ যারাই সুনামগঞ্জের শহীদ সিরাজ লেকে  এমন মনগড়া বানিজ্যিক তামাশা করছেন সেটি বন্ধ করতে হবে।’

তীব্র সমালোচনার মুখে অবশেষে ফলকটি অপসারণের সিদ্ধান্ত নেয় সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যে ইত্যাদি পয়েন্ট নির্মাণ কাজ বন্ধ করা হয়েছে। এই ফলক ভেঙে ফেলার কাজ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রাশেদ ইকবাল।

সিলেটের জমিন/বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২৪


এ জাতীয় আরো খবর

৭ মাসে হাফেজ হলেন ১১ বছরের আল মাহির

৭ মাসে হাফেজ হলেন ১১ বছরের আল মাহির

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

 ফের তমব্রু সীমান্তে গুলির শব্দ, আতঙ্কে স্থানীয়রা

ফের তমব্রু সীমান্তে গুলির শব্দ, আতঙ্কে স্থানীয়রা

সম্পর্কের নতুন অধ্যায় শুরু করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সম্পর্কের নতুন অধ্যায় শুরু করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

কোলের শিশুকে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন মা

কোলের শিশুকে নিয়ে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন মা

নারী উদ্যোক্তা তৈরিতে বিশ্বব্যাংকের বিশেষ তহবিল চান প্রধানমন্ত্রী

নারী উদ্যোক্তা তৈরিতে বিশ্বব্যাংকের বিশেষ তহবিল চান প্রধানমন্ত্রী